বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল আইন, ২০১০

( ২০১০ সনের ৪২ নং আইন )

দ্রুত অর্থনৈতিক উন্নয়ন তথা শিল্পায়ন, কর্মসংস্থান, উৎপাদন এবং রপ্তানী বৃদ্ধি ও বহুমুখীকরণে উৎসাহ প্রদানের জন্য পশ্চাৎপদ ও অনগ্রসর এলাকাসহ সম্ভাবনাময় সকল এলাকায় অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠা এবং উহার উন্নয়ন, পরিচালনা, ব্যবস্থাপনা ও নিয়ন্ত্রণসহ আনুষঙ্গিক অন্যান্য বিষয়ে বিধান প্রণয়নকল্পে প্রণীত আইন।

যেহেতু, দ্রুত অর্থনৈতিক উন্নয়ন তথা শিল্পায়ন, কর্মসংস্থান, উৎপাদন এবং রপ্তানী বৃদ্ধি ও বহুমুখীকরণে উৎসাহ প্রদানের জন্য পশ্চাৎপদ ও অনগ্রসর এলাকাসহ সম্ভাবনাময় সকল এলাকায় অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠা এবং উহার উন্নয়ন, পরিচালনা, ব্যবস্থাপনা ও নিয়ন্ত্রণসহ আনুষঙ্গিক অন্যান্য বিষয়ে বিধান করা সমীচীন ও প্রয়োজনীয়;

 
 
 
 

সেহেতু, এতদ্দ্বারা নিম্নরূপ আইন করা হইল :-

সূচি

ধারাসমূহ

১। সংক্ষিপ্ত শিরোনাম, প্রয়োগ এবং প্রবর্তন

২। সংজ্ঞা

৩। আইনের প্রাধান্য

৪।অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠা

৫। অর্থনৈতিক অঞ্চলের জন্য ভূমি নির্বাচন এবং অর্থনৈতিক অঞ্চল ঘোষণা

৬। অর্থনৈতিক অঞ্চলের জন্য ভূমি অধিগ্রহণ

৭। অর্থনৈতিক অঞ্চলকে বিভিন্ন এলাকায় বিভাজন

৭ক। বাংলাদেশ সরকার ও অন্য কোন দেশের সরকারের মধ্যে অংশীদারিত্ব বা উদ্যোগে অথবা এক বা একাধিক সরকারি সংস্থা বা কর্তৃপক্ষ বা কোন প্রতিষ্ঠানের মধ্যে অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনা গ্রহণ

৭খ। প্রক্রিয়াকরণ কমিটি গঠন, ইত্যাদি

৮। অর্থনৈতিক অঞ্চল ডেভেলপার নিয়োগ

৯। অর্থনৈতিক অঞ্চলে স্থাপিতব্য শিল্প ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের শ্রেণী, ইত্যাদি

১০। অর্থনৈতিক অঞ্চলের জন্য বিশেষ শুল্ক সুবিধা

১১। আর্থিক সুবিধা, ইত্যাদি

১২। অন্যান্য সুবিধাদি

১৩। কতিপয় আইনের প্রয়োগ হইতে অব্যাহতি প্রদানের ক্ষমতা

১৪। অর্থনৈতিক অঞ্চলের মধ্যে ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনার অনুমতি প্রদান

১৫। অর্থনৈতিক অঞ্চলে শিল্প স্থাপন

১৬। ভূমি বরাদ্দ, ইত্যাদি

১৭। কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠা

১৮। কর্তৃপক্ষের প্রধান কার্যালয়, ইত্যাদি

১৯। কর্তৃপক্ষের দায়িত্ব ও কার্যাবলী

২০। কর্তৃপক্ষের পরিচালনা, ইত্যাদি

২১। গভর্ণিং বোর্ড

২২। গভর্ণিং বোর্ডের কার্যাবলী, নীতি বাস্তবায়ন, ইত্যাদি

২৩। গভর্ণিং বোর্ডের সভা

২৪। নির্বাহী বোর্ড

২৫। নির্বাহী বোর্ডের সভা

২৬। সচিব, কর্মকর্তা, কর্মচারী নিয়োগ, ইত্যাদি

২৭। কমিটিসমূহ

২৮। কতিপয় ক্ষেত্রে অনুমতিপত্র স্থগিত বা বাতিলকরণ

২৯। ঋণ গ্রহণের ক্ষমতা

৩০। কর্তৃপক্ষের তহবিল

৩১। বাজেট

৩২। হিসাব ও নিরীক্ষা

৩৩। পরিবেশ সংক্রান্ত আইন, ইত্যাদির প্রতিপালন

৩৪। শ্রমিক কল্যাণ সমিতি ও শিল্প সম্পর্ক বিষয়ক আইনের প্রযোজ্যতা

৩৫। বার্ষিক প্রতিবেদন, ইত্যাদি

৩৬। দেওয়ানী মামলা বিচারের ক্ষেত্রে আদালত নির্দিষ্টকরণ, ইত্যাদি

৩৭। কর্তৃপক্ষের বিশেষ অধিকার

৩৮। বিধি প্রণয়নের ক্ষমতা

৩৯। প্রবিধান প্রণয়নের ক্ষমতা

৪০। অসুবিধা দূরীকরণ

৪১। মূল পাঠ এবং ইংরেজী পাঠ

Authentic English Text

Authentic English Text