বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরী কমিশন আইন, ২০০৩

( ২০০৩ সনের ১৩ নং আইন )

এনার্জি সেক্টরে স্বাধীন ও নিরপেক্ষ রেগুলেটরী কমিশন প্রতিষ্ঠার বিধান প্রণয়নকল্পে প্রণীত আইন৷
 
 
 
যেহেতু বিদ্যুত্ উত্পাদন এবং গ্যাস সম্পদ ও পেট্রোলিয়ামজাত পদার্থের সঞ্চালন, পরিবহন ও বাজারজাতকরণে বেসরকারী বিনিয়োগের অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি, উক্ত খাতে ব্যবস্থাপনা, পরিচালনা, ট্যারিফ নির্ধারণে স্বচ্ছতা আনয়ন, ভোক্তার স্বার্থ সংরক্ষণ ও প্রতিযোগিতামূলক বাজার সৃষ্টির লক্ষ্যে স্বাধীন ও নিরপেক্ষ রেগুলেটরী কমিশন প্রতিষ্ঠার বিধান করা সমীচীন ও প্রয়োজনীয়;
 
 
 
 
সেহেতু এতদ্‌দ্বারা নিম্নরূপ আইন করা হইল:-
 
 
 

সূচি

ধারাসমূহ

১৷ সংক্ষিপ্ত শিরোনামা ও প্রবর্তন

২৷ সংজ্ঞা

৩৷ আইনের প্রাধান্য

৪৷ কমিশন প্রতিষ্ঠা

৫৷ কমিশনের কার্যালয়, ইত্যাদি

৬৷ কমিশনের গঠন, ইত্যাদি

৭৷ সদস্যের যোগ্যতা, অযোগ্যতা, ইত্যাদি

৮৷ চেয়ারম্যান ও সদস্যদের চাকুরীর মেয়াদ, পদত্যাগ, ইত্যাদি

৯৷ সদস্যপদে শূন্যতার কারণে কার্য বা কার্যধারা অবৈধ না হওয়া

১০৷ সদস্যদের পদমর্যাদা, বেতন, ভাতা, ইত্যাদি

১১৷ সদস্যের অপসারণ

১২৷ কমিশনের সভা

১৩৷ কমিশনের সচিব, কর্মকর্তা, কর্মচারী নিয়োগ, ইত্যাদি

১৪৷ কমিটি

১৫৷ প্রেষণে কমিশনের জনবল নিয়োগ

১৬৷ কমিশন বহির্ভূত চাকুরী

১৭৷ কমিশনের তহবিল

১৮৷ ঋণ গ্রহণের ক্ষমতা

১৯৷ বার্ষিক বাজেট বিবরণী

২০৷ হিসাব রক্ষণ ও নিরীক্ষা

২১৷ প্রতিবেদন

২২৷ কমিশনের কার্যাবলী

২৩৷ তদন্ত সম্পর্কিত ক্ষমতা

২৪৷ এনার্জির ক্ষেত্রে সরকারের ক্ষমতা

২৫৷ এনার্জি ব্যবহার নিয়ন্ত্রণে জরুরী ক্ষমতা

২৬৷ বিরোধ নিষ্পত্তি

২৭৷ লাইসেন্স

২৮৷ কমিশন কর্তৃক লাইসেন্স প্রদান

২৯৷ লাইসেন্সের প্রয়োজনীয়তা হইতে অব্যাহতি

৩০৷ লাইসেন্স নবায়ন, সংশোধন ও বাতিল

৩১৷ লাইসেন্সীর সাধারণ কর্তব্য ও ক্ষমতা

৩২৷ লাইসেন্সীর উপর বিধি-নিষেধ

৩৩৷ লাইসেন্সীর বাত্সরিক হিসাব

৩৪৷ ট্যারিফ

৩৫৷ শর্ত পালনে অন্তর্বর্তীকালীন বা চূড়ান্ত আদেশ

৩৬৷ জরুরি বিধান

৩৭৷ অন্তর্বর্তীকালীন এবং চূড়ান্ত আদেশের বাস্তবায়ন

৩৮৷ কার্যসম্পাদনের মান সম্পর্কে তথ্য

৩৯৷ তথ্য প্রকাশে বাধা-নিষেধ

৪০৷ কমিশন কর্তৃক সালিস-মীমাংসা

৪১৷ পরিদর্শকের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপীল

৪২৷ শাস্তি

৪৩৷ আদেশ লঙ্ঘনের জন্য জরিমানা ও শাস্তি

৪৪৷ এনার্জি চুরির শাস্তি

৪৫৷ বিদ্যুত্ লাইন বা গ্যাস পাইপ লাইন স্থাপন ইত্যাদি নির্মাণ বা মেরামতে বাধা প্রদানের শাস্তি

৪৬৷ কোম্পানী কর্তৃক অপরাধ সংঘটন

৪৭৷ অপরাধ বিচারার্থে গ্রহণ

৪৮৷ অন্য আইনের অধীন ব্যবস্থাকে ক্ষুণ্ন না করা

৪৯৷ আমল আদালতের এখ্‌তিয়ার

৫০৷ বিচার আদালতের এখ্‌তিয়ার

৫১৷ অভিযোগ দায়ের ও তদন্ত পদ্ধতি

৫২৷ ফৌজদারী কার্যবিধির প্রয়োগ

৫৩৷ পাবলিক প্রসিকিউটর ইত্যাদিকে কমিশনের কর্মকর্তা কর্তৃক সহায়তা

৫৪৷ ভোক্তাদের অভিযোগ গ্রহণ ও নিষ্পত্তি

৫৫৷ কমিশনের আদেশ চূড়ান্ত

৫৬৷ ফি, জরিমানা ও চার্জ আদায়

৫৭৷ জরিমানা ও চার্জ এর ব্যয়

৫৮৷ বিধি প্রণয়নের ক্ষমতা

৫৯৷ প্রবিধান প্রণয়নের ক্ষমতা

৬০৷ ক্ষমতার্পণ

৬১৷ জনসেবক (Public Servant)

৬২৷ সরল বিশ্বাসে কৃত কাজকর্ম রক্ষণ

৬৩৷ কার্যধারা বিচার বিভাগীয় কার্যধারা হিসাবে গণ্য

৬৪৷ বিশেষ বা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ

৬৫৷ ইংরেজীতে অনূদিত পাঠ প্রকাশ

৬৬৷ ক্রান্তিকালীন লাইসেন্স প্রদান সম্পর্কিত বিধান