ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইন, ২০০৫

( ২০০৫ সনের ১১ নং আইন )

ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্যের উত্পাদন, ব্যবহার, ক্রয়-বিক্রয় ও বিজ্ঞাপন নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে বিধান প্রণয়নকল্পে প্রণীত আইন৷
 
 
 
যেহেতু ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্যের ব্যবহার জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর;
 
 
 
 
যেহেতু বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার ৫৬তম সম্মেলনে ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্যের ব্যবহার নিরুত্সাহিত করার জন্য Framework Convention on Tobacco Control (FCTC) নামীয় কনভেনশনে বাংলাদেশ ১৬ জুন, ২০০৩ ইং তারিখে স্বাক্ষর এবং ১০ মে, ২০০৪ ইং তারিখে অনুস্বাক্ষর করিয়াছে; এবং
 
 
 
 
যেহেতু উক্ত কনভেনশনের বিধানাবলী বাংলাদেশে কার্যকর করার লক্ষ্যে ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্যের উত্পাদন, ব্যবহার, ক্রয়-বিক্রয় ও বিজ্ঞাপন নিয়ন্ত্রণ করা সমীচীন ও প্রয়োজনীয়;
 
 
 
 
সেহেতু এতদ্‌দ্বারা নিম্নরূপ আইন করা হইল:-
 
 
 

সূচি

ধারাসমূহ

১৷ সংক্ষিপ্ত শিরোনামা ও প্রবর্তন

২৷ সংজ্ঞা

৩৷ অন্যান্য আইনের প্রয়োগ

৪৷ পাবলিক প্লেস এবং পাবলিক পরিবহণে ধূমপান নিষিদ্ধ

৫। তামাকজাত দ্রব্যের বিজ্ঞাপন ও প্রচারণা নিষিদ্ধ এবং পৃষ্ঠপোষকতা নিয়ন্ত্রণ সম্পর্কিত বিধান

৬। অটোমেটিক ভেন্ডিং মেশিন স্থাপন নিষিদ্ধ

৬ক। অপ্রাপ্ত বয়স্ক ব্যক্তির নিকট তামাক বা তামাকজাত দ্রব্য বিক্রয় নিষিদ্ধ, ইত্যাদি

৭৷ ধূমপান এলাকার ব্যবস্থা

৭ক। পাবলিক প্লেস বা পাবলিক পরিবহনের মালিক, ইত্যাদির দায়িত্ব

৮৷ সতর্কতামূলক নোটিশ প্রদর্শন

৯৷ কর্তৃত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার ক্ষমতা

১০। তামাকজাত দ্রব্যের প্যাকেটে স্বাস্থ্য ও অন্যান্য ক্ষতি সম্পর্কিত সচিত্র সতর্কবাণী মুদ্রণ, ইত্যাদি

১১৷ তামাকজাত দ্রব্য আমদানির ক্ষেত্রে উপাদান সম্পর্কিত তথ্য প্রদান

১২। তামাক ও তামাক জাতীয় ফসল উৎপাদন ও ব্যবহার নিরুৎসাহিতকরণ

১৩৷ জনসেবক

১৪৷ অপরাধ বিচারার্থ গ্রহণ এবং জামিনযোগ্য

১৫৷ কোম্পানী কর্তৃক অপরাধ সংঘটন

১৫ক। জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রণ সেল গঠন, ইত্যাদি

১৬৷ বিধি প্রণয়নের ক্ষমতা

১৭৷ মূল পাঠ এবং ইংরেজীতে পাঠ

১৮৷ রহিতকরণ ও হেফাজত