[Home] [Act List]  
 
বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ আইন, ২০১০
( ২০১০ সনের ৬৩ নং আইন )
[২০শে ডিসেম্বর, ২০১০]  
 
 
বাংলাদেশের সীমান্ত নিরাপত্তা রক্ষা, আন্তঃরাষ্ট্র সীমান্ত অপরাধ প্রতিরোধ এবং তৎসংশ্লিষ্ট কার্যাবলী সম্পাদনের লক্ষ্যে বাংলাদেশ রাইফেলস্ পুনর্গঠনপূর্বক বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ নামে একটি আধা-সামরিক বাহিনী গঠন, উহার নিয়ন্ত্রণ, পরিচালনা, শৃঙ্খলা ও রক্ষণাবেক্ষণ সংক্রান্ত বিদ্যমান আইন সুসংহতকরণপূর্বক উহা পুনঃ প্রণয়নকল্পে প্রণীত আইন।
 
যেহেতু বাংলাদেশের সীমান্ত নিরাপত্তা রক্ষা, আন্তঃরাষ্ট্র সীমান্ত অপরাধ প্রতিরোধ এবং তৎসংশ্লিষ্ট কার্যাবলী সম্পাদনের লক্ষ্যে বাংলাদেশ রাইফেল্স পুনর্গঠনপূর্বক বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ নামে একটি আধা-সামরিক বাহিনী গঠন, উহার নিয়ন্ত্রণ, পরিচালনা, শৃঙ্খলা ও রক্ষাণাবেক্ষণ সংক্রান্ত বিদ্যমান আইন সুসংহতকরণপূর্বক উহা পুনঃ প্রণয়নকল্পে বিধান করা সমীচীন ও প্রয়োজনীয়;
সেহেতু এতদ্দ্বারা নিম্নরূপ আইন করা হইলঃ-
 
সূচী
ধারাসমূহ
 
প্রথম অধ্যায়
প্রারম্ভিক
১। সংক্ষিপ্ত শিরোনাম ও প্রবর্তন
২। সংজ্ঞা
৩। অধিভুক্ত ব্যক্তি
৪। আইনের প্রাধান্য
দ্বিতীয় অধ্যায়
বাহিনীর গঠন
৫। বাহিনী ও উহার গঠন
৬। নিয়মিত বর্ডার গার্ড বাহিনী
৭। বাহিনীর সংরক্ষিত অংশ
৮। বাহিনীর সদর দপ্তর
৯। মহাপরিচালক, ইত্যাদি
১০। তত্ত্বাবধান, পরিচালনা ও নিয়ন্ত্রণ
তৃতীয় অধ্যায়
বাহিনীর কার্যাবলী
১১। বাহিনীর কার্যাবলী
চতুর্থ অধ্যায়
বাহিনীর সদস্যগণের ক্ষমতা ও দায়িত্ব
১২। বাহিনীর সদস্যগণের ক্ষমতা
১৩। গ্রেফতারকৃত ব্যক্তি, ইত্যাদি সোপর্দকরণ
১৪। ক্ষমতা অর্পণ
১৫। মহাপরিচালকের নির্দেশ জারীর ক্ষমতা
১৬। বাক-স্বাধীনতা, সংগঠন প্রতিষ্ঠা, ইত্যাদি সম্পর্কিত সীমাবদ্ধতা
পঞ্চম অধ্যায়
নিয়োগ ও চাকুরীর শর্তাবলী
১৭। বাহিনীতে নিয়োগের ক্ষেত্রে বিদেশীদের অযোগ্যতা
১৮। কর্মকর্তাগণের নিয়োগ ও চাকুরীর শর্তাবলী
১৯। জুনিয়র কর্মকর্তা ও বর্ডার গার্ড সদস্যগণের নিয়োগ, পদোন্নতি ও চাকুরীর শর্তাবলী
২০। বাহিনীর সদস্যগণের বদলী ও ছুটি
ষষ্ঠ অধ্যায়
চাকুরীর অবসান
২১। বাহিনীর সদস্যগণের চাকুরী হইতে বরখাস্ত বা অপসারণ বা অব্যাহতি
২২। চাকুরী হইতে অবসানের সনদ
সপ্তম অধ্যায়
প্রশাসনিক আদেশে পদাবনমন
২৩। প্রশাসনিক আদেশে পদাবনমন
২৪। চাকুরী অবসান ও পদাবনমন আদেশের বিরূদ্ধে প্রতিকার
অষ্টম অধ্যায়
অপরাধ
২৫। শত্রু সম্পর্কিত গুরূতর অপরাধ
২৬। শত্রু সম্পর্কিত অন্যান্য অপরাধ
২৭। যুদ্ধাবস্থায় বা সক্রিয় কর্তব্য অবস্থায় কৃত অপরাধ
২৮। বিদ্রোহ
২৯। চাকুরী হইতে পলায়ন এবং উহাতে সহায়তাকরণ
৩০। ছুটি ব্যতীত অনুপস্থিত
৩১। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার প্রতি অপরাধজনক বল প্রয়োগ ও হুমকি প্রদর্শন
৩২। অধঃস্তন কোন ব্যক্তিকে আঘাত
৩৩। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার আইনানুগ আদেশ অমান্যকরণ
৩৪। গ্রেফতারকালীন অবাধ্যতা এবং প্রতিবন্ধকতা
৩৫। তালিকাভুক্তি ফরমে মিথ্যা তথ্য প্রদান
৩৬। সম্পত্তি সংক্রান্ত প্রতারণামূলক অপরাধ
৩৭। মর্যাদাহানিকর আচরণ
৩৮। সীমান্ত কর্তব্য অবহেলা, উৎকোচ গ্রহণ বা প্রদান, ইত্যাদি
৩৯। জুয়াখেলা, মদ্যপ অবস্থায় মাতলামী করা বা মাদকাসক্ত হওয়া
৪০। বন্দী ব্যক্তি সম্পর্কিত অপরাধ
৪১। অস্ত্র বা সরকারি বা বাহিনীর সম্পত্তি বিনষ্টকরণ, হারানো
৪২। মিথ্যা অভিযোগ আনয়ন
৪৩। সরকারি দলিল জালকরণ ও মিথ্যা ঘোষণা
৪৪। সাদা কাগজে স্বাক্ষর এবং প্রতিবেদন উপস্থাপনে ব্যর্থতা
৪৫। বর্ডার গার্ড আদালত ও তদন্ত আদালত সংক্রান্ত অপরাধ
৪৬। অবৈধভাবে বেতন স্থগিতকরণ
৪৭। বলপূর্বক ও অবৈধভাবে অর্থ, সম্পদ, ইত্যাদি গ্রহণ
৪৮। অশোভন আচরণ
৪৯। সু-আচরণ ও শৃঙ্খলার পরিপন্থী কার্য বা বিচ্যুতি
৫০। বিবিধ অপরাধ
৫১। অপরাধ সংঘটনের প্রচেষ্টা
৫২। অপরাধ সংঘটনের প্ররোচনা
৫৩। অসামরিক অপরাধ
৫৪। বর্ডার গার্ড আদালত কর্তৃক বিচার্য নয় এমন অসামরিক অপরাধ
নবম অধ্যায়
দণ্ড
৫৫। বর্ডার গার্ড আদালত কর্তৃক প্রদেয় দণ্ড
৫৬। বর্ডার গার্ড আদালত কর্তৃক প্রদত্ত দণ্ডের বিকল্প
৫৭। দণ্ডসম্পর্কিত বিশেষ বিধান
৫৮। বর্ডার গার্ড আদালত ব্যতীত অন্য পদ্ধতিতে প্রদেয় দণ্ড
৫৯। পদবিধারী ও তালিকাভুক্ত বর্ডার গার্ড সদস্যগণের লঘু দণ্ড
৬০। ধারা ৫৯ এ উল্লিখিত লঘু দণ্ডের সীমা
৬১। কর্মকর্তা ও জুনিয়র কর্মকর্তাদের লঘু দণ্ড
৬২। লঘুদণ্ড পুনর্বিবেচনা
দশম অধ্যায়
গ্রেফতার এবং বিচার-পূর্ব কার্যপদ্ধতি
৬৩। অপরাধীর গ্রেফতার
৬৪। গ্রেফতারের ক্ষেত্রে অধিনায়কের কর্তব্য
৬৫। গ্রেফতার এবং বিচার অনুষ্ঠানের মধ্যবর্তী সময়
৬৬। অসামরিক কর্তৃপক্ষ কর্তৃক গ্রেফতার
৬৭। পলাতকের গ্রেফতার
৬৮। অভিযোগের তদন্ত সম্পর্কিত বিধান
৬৯। গার্ড পুলিশ
একাদশ অধ্যায়
বর্ডার গার্ড আদালতের গঠন, এখতিয়ার ও ক্ষমতা
৭০। বর্ডার গার্ড আদালতের প্রকারভেদ
৭১। স্পেশাল বর্ডার গার্ড আদালত
৭২। স্পেশাল সামারী বর্ডার গার্ড আদালত
৭৩। সামারী বর্ডার গার্ড আদালত
৭৪। বর্ডার গার্ড আদালতের বিলুপ্তি
৭৫। দ্বিতীয়বার বিচার সম্পর্কে রক্ষণ
৭৬। অধিভুক্ততা সমাপ্ত হইয়াছে এমন অপরাধীর দায়বদ্ধতা
৭৭। দণ্ড-প্রাপ্ত ব্যক্তির ক্ষেত্রে আইনের অধিভুক্ততা
৭৮। বিচারের স্থান
৭৯। বর্ডার গার্ড আদালত এবং অসামরিক আদালতের যৌথ এখতিয়ারের ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত
৮০। অপরাধীর হস্তান্তরের ক্ষেত্রে অসামরিক আদালতের ক্ষমতা
দ্বাদশ অধ্যায়
বর্ডার গার্ড আদালত কর্তৃক অনুসরণীয় পদ্ধতি
৮১। আপত্তি
৮২। সদস্য, আইন কর্মকর্তা এবং সাক্ষীর শপথ গ্রহণ
৮৩। সদস্যগণের ভোটদান
৮৪। সাক্ষী সম্পর্কিত সাধারণ নিয়ম
৮৫। ক্যামেরায় গৃহীত ছবি, রেকর্ডকৃত কথাবার্তা, ইত্যাদি সাক্ষীমূল্য
৮৬। সাক্ষীর প্রতি সমন
৮৭। সাক্ষীকে পরীক্ষা করিবার কমিশন
৮৮। কমিশন কর্তৃক সাক্ষীকে পরীক্ষা
৮৯। অভিযোগ গঠন করা হয় নাই এমন অপরাধে দণ্ড প্রদান
৯০। তালিকাভুক্তির ফরম
৯১। কতিপয় দলিলের সাক্ষ্যমূল্য
৯২। অভিযুক্ত কর্তৃক সরকারি কর্মকর্তার বরাত (reference)
৯৩। পূর্বের দণ্ড এবং সাধারণ চরিত্র সম্পর্কিত সাক্ষ্য
৯৪। অপরাধী অপ্রকৃতিস্থ হইবার ক্ষেত্রে বিধান
৯৫। অপ্রকৃতিস্থ ব্যক্তির সুস্থ হইবার পর বিচার
৯৬। অপ্রকৃতিস্থ অভিযুক্তের অবমুক্তি
৯৭। বিচারাধীন অপরাধের সহিত সংশ্লিষ্ট মালামালের হেফাজত ও নিষ্পত্তি সম্পর্কে আদেশ
৯৮। অপরাধের সহিত সংশিস্নষ্ট মালামালের বিলি-বন্টন
৯৯। এই আইনের অধীন কার্যধারার ক্ষেত্রে বর্ডার গার্ড আদালতের ক্ষমতা
ত্রয়োদশ অধ্যায়
রায় এবং দণ্ডাদেশ অনুমোদন (confirmation) এবং পুনর্বিবেচনা
১০০। রায় ও দণ্ডাদেশ অনুমোদন
১০১। স্পেশাল বর্ডার গার্ড আদালতের রায় এবং দণ্ডাদেশ অনুমোদন করিবার ক্ষমতা
১০২। স্পেশাল সামারী বর্ডার গার্ড আদালতের রায় এবং দণ্ডাদেশ অনুমোদন করিবার ক্ষমতা
১০৩। অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষর শর্ত আরোপের ক্ষমতা
১০৪। অনুমোদনকারী কর্তৃপক্ষ কর্তৃক দণ্ডর মাত্রা হ্রাস, লাঘব বা লঘু মাত্রায় পরিবর্তন করিবার ক্ষমতা
১০৫। রায় ও দণ্ডাদেশ সংশোধনার্থ পুনরীক্ষণ (Revision)
১০৬। সামারী বর্ডার গার্ড আদালতের রায় ও দণ্ডাদেশ
১০৭। সামারী বর্ডার গার্ড আদালতের কার্যধারা প্রেরণ
১০৮। অসিদ্ধ রায় অথবা দণ্ডাদেশকে বৈধ রায় ও দণ্ডাদেশ দ্বারা প্রতিস্থাপন
১০৯। বর্ডার গার্ড আদালতের রায় ও দণ্ডাদেশের বিরূদ্ধে প্রতিকার
১১০। কার্যধারা বাতিলকরণ
চতুর্দশ অধ্যায়
আপীল
১১১। বর্ডার গার্ড আপীল ট্রাইব্যুনাল
১১২। বর্ডার গার্ড আপীল ট্রাইব্যুনাল গঠন
১১৩। বর্ডার গার্ড আপীল ট্রাইব্যুনালের এখতিয়ার ও ক্ষমতা
১১৪। আদালতের এখতিয়ার বারিত
পঞ্চদশ অধ্যায়
দণ্ডাদেশ কার্যকরকরণ, ক্ষমা, লাঘব ও স্থগিতকরণ
১১৫। মৃত্যু দণ্ডাদেশ কার্যকর করিবার পদ্ধতি
১১৬। যাবজ্জীবন কারাদণ্ড অথবা সশ্রম কারাদণ্ডর মেয়াদ গণনা
১১৭। যাবজ্জীবন কারাদণ্ড অথবা সশ্রম কারাদণ্ডর শাস্তি কার্যকরকরণ
১১৮। বিশেষ ক্ষেত্রে কারাদণ্ডাদেশ কার্যকরকরণ
১১৯। যাবজ্জীবন ও সশ্রম কারাদণ্ড প্রাপ্ত কয়েদীর অন্তর্বর্তীকালীন আটক
১২০। অসামরিক কারা কর্তৃপক্ষর নিকট সংশোধিত ওয়ারেন্ট প্রেরণ
১২১। জরিমানার দণ্ড কার্যকরকরণ
১২২। ক্ষমা এবং লাঘব
১২৩। শর্তযুক্ত ক্ষমা, লাঘব বা প্যারোলে মুক্তি বাতিলকরণ
১২৪। যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও সশ্রম কারাদণ্ডর দণ্ডাদেশ স্থগিতকরণ
১২৫। স্থগিতকরণের প্রেক্ষিতে দণ্ডাদেশ মুলতবী রাখিবার আদেশ
১২৬। দণ্ড স্থগিতকরণের প্রেক্ষিতে মুক্তি
১২৭। স্থগিত দণ্ডাদেশের ক্ষেত্রে সময় গণনা
১২৮। স্থগিতকরণ, বাতিল অথবা লাঘবের আদেশ প্রদানের ক্ষমতা
১২৯। দণ্ডাদেশ স্থগিতকরণ পরবর্তী পুনর্বিবেচনা
১৩০। দণ্ডাদেশ স্থগিতকরণের পর নূতন দণ্ড আরোপের পদ্ধতি
১৩১। স্থগিতকরণ আদেশের পরিধি
১৩২। বরখাস্তের উপর স্থগিতকরণ ও লাঘবের প্রভাব
ষষ্ঠদশ অধ্যায়
বিবিধ
১৩৩। বাহিনীর সদস্যগণের কৃত কাজ-কর্মের রক্ষণ
১৩৪। রহিতকরণ ও হেফাজত
১৩৫। বিধি প্রণয়নের ক্ষমতা
১৩৬। প্রবিধি প্রণয়নের ক্ষমতা
১৩৭। আইনের ইংরেজীতে অনূদিত পাঠ প্রকাশ
   

Copyright © 2010, Legislative and Parliamentary Affairs Division
Ministry of Law, Justice and Parliamentary Affairs